রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০৬:১৯ অপরাহ্ন

ঘোষনাঃ-
সারাদেশে সকল জেলা ও উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ করা হইবে, আগ্রহী প্রার্থীগণকে নিম্ন ঠিকানায় অথবা ইমেইল এ আবেদন পত্র জমা দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হইলো।
শিরোনাম :
লালমনিরহাটে হুন্ডি ব্যবসায়ী ভারতীয় ৭লাখ ৭০হাজার রুপিসহ পুলিশের হাতে আটক পাটগ্রামে ইউএনও’র কুশপুত্তলিকা দাহ করার ঘটনায় গোয়েন্দা সংস্থার তদন্ত চলছে অর্থাভাবে অগ্নিদগ্ধ এক নারীর চিকিৎসা করাতে পারছেনা হতদরিদ্র পরিবারঃআশঙ্কাজনক! পাটগ্রামে কাজীর কুকর্ম ফাঁস করলেন প্রতারনার শিকার এক গৃহবধূ! সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পিলখানা হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দোষীদের চূড়ান্ত বিচারের রায় এই বছরের মধ্যেই কার্যকর করার দাবি জানিয়েছে বিএনপি ঢাকা-জলপাইগুড়ি ট্রেন চলাচল শুরু ২৬ মার্চ পাটগ্রামে আবারও ইউএনও বদলি! ভারতীয় পুলিশের হাতে আটক বাংলাদেশি যুবক! জমি দখল নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে মুক্তিযোদ্ধা পরিবার লালমনিরহাটে পলিথিনে মোড়ানো গুলিভর্তি একটি ম্যাগাজিন উদ্ধার! পাটগ্রামে ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী ব্যাংক কর্মকর্তা নিহত সাংবাদিক হত্যার বিচার দাবিতে ২৩ ফেব্রুয়ারি দেশব্যাপী প্রতিবাদ সমাবেশের ঘোষণা লালমনিরহাটে মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত পাটগ্রামে দিনমুজুরের কন্যা ৮ বছরের শিশু অগ্নিদগ্ধ!আর্থিক সংকটে উন্নত চিকিৎসা সোনালী ব্যাংক লিমিটেড লালমনিরহাট শাখার অবসরপ্রাপ্ত অফিসার মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিকের ইন্তেকাল সলঙ্গায় ভুমিহীনদের মাঝে পাকা ঘর বিতরনে অনিয়মের অভিযোগ পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের শিক্ষা সাপোর্ট নিয়ে কাজ করছে রাদসা হাতীবান্ধায় ডাক্তারের বিরুদ্ধে রোগীর চিকিৎসা না করে অসৎ আচরনের অভিযোগ এক জমিতে একই সাথে তিন ফসল দেখছেন হাতীবান্ধার কৃষক

তিনবিঘা পথে চোরাচালান বাণিজ্য পরিচালনা করছেন শক্তিশালী সিন্ডিকেট!

সানি, লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ

লালমনিরহাটের বহুল আলোচিত দহগ্রাম ইউনিয়নে যাতায়াতের একমাত্র পথ তিনবিঘা করিডোর। সেখানে গড়ে উঠেছে চোরাচালান বাণিজ্যের শক্তিশালী সিন্ডিকেট।সেই সিন্ডিকেটকে ম্যানেজ করে চলছে দিনে-রাতে কোটি কোটি টাকার অবৈধ মালামালের কারবার।এজন্য কথিত লাইনম্যানের মাধ্যমে হিস্যা অনুযায়ী বখরা দিতে হয়।নয়তো মাল আটকে দিলে আরও বেশি খরচ হবে নতুবা সিজার।এমন নানারকম ফঁন্দিফিকির করেই ছোট খাটো পুঁটিসহ রাঘোববোয়ালরা চালিয়ে আসছেন তাদের অনৈতিক কারবার।
সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়,এক শ্রেণির দালালের সাথে সেখানকার পুলিশ বিজিবি’র সখ্যতা রয়েছে।
পানবাড়ি তিনবিঘা গুচ্ছগ্রাম বঙ্গেরবাড়ি এবং শেষ সীমানা আঙ্গারপোতা এলাকা ঘুরে বিভিন্নজনের কাছে জানা যায়,একেক জায়গার দায়িত্বে আছেন একেকজন।
রাস্তার মোড়ে মোড়ে লিজ নেয়ার মত কান্ডকীর্তি! লাইনম্যানের এলাকা ভাগ আছে।
যে এলাকা থেকে ভারতীয় পণ্য অবৈধ মালামাল আসুক না কেন,সেই এলাকার প্রশাসনের লাইন ম্যান ছাড়াও দলিয় নেতা-কমীর্দেরও নজর আনা দিতে হয়।
না দিলে মালামাল গায়েব হওয়ার আশঙ্কা থাকে বলে ভয়ে কেউ কাউকে ফাঁকি দেয়ার চেস্টা করেন না।
অভিযোগ রয়েছে,তিনবিঘা করিডোর পথে দহগ্রাম ফাঁড়ি টু পাটগ্রাম প্রশাসন যেমন নজরদাড়িতে রাখেন তেমন বিজিবি’রও কড়া দৃষ্টি থাকে।তারপরও থেমে নেই অবৈধ কারবার।ভারতীয় গরু,চা-পাতা,চই,ডিস এন্টেনা,শাড়ি,কাপড়,থ্রীপিস,লেহেঙ্গা,সেরেআনি,পাঞ্জাবী এমনকি ভারতীয় কসমেটিক্স এর সাথে সেক্সের ঔষধ ভায়াগ্রাসহ বিভিন্ন আইটেমের নারী পণ্য দেদারছে আসছে।স্থানীয় প্রশাসন গাড়ী চেকিং বা তল্লাসীর নামে মালামালের পরিমাণ ও আইটেম দেখে বখরা ধায্য করেন বলেন জানা গেছে।
দহগ্রামবাসীর সুখ-দুঃখের হাসি কান্নার অজানা সব খবর জানতে মূলতঃ সবার দৃষ্টি থাকে সেদিকে।কোন কোন অসহায় লোকজন ইউনিয়ন থেকে গবাদিপশু বিক্রয়ের স্লীপ পেতে দিনেরপরদিন হয়রানী হলেও কালো টাকার ব্যবসায়ীদের সেই স্লীপ ম্যানেজ করেন এক পলকে।

সম্প্রতি প্রশাসনের হাতে লাখ লাখ টাকা অবৈধ পণ্য আটক হলেও বড় বড় চালানগুলো চলে যাচ্ছে ঘুষের বিনিময়ে।
এমন দৃশ্য জনগণেই নিয়মিত দেখেন স্বচোখে।ভারতীয় মালামালের অবৈধ কারবার, যাচ্ছে কী,আসছে কী এসব প্রশ্নের উত্তর দিতে নারাজ দায়িত্বশীল জনপ্রতিনিধি কিংবা প্রশাসন।তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে শতশত মানুষ স্বীকার করেন দীর্ঘদিন ধরেই এ পথে চলছে চোরাচালানের স্বর্গরাজ্য।
দেখার কেউ নেই,প্রতিবাদ করার সাহস নেই।
বিজিবি’র পানবাড়ি কোং বিওপিতে সিসিটিভি থাকলেও সেটি কতটুকু বা কার্যকর তা প্রশ্ন থেকেই যায়।
দহগ্রাম থেকে সাধারণ জনগণ কোন কিছু আনতে গেলে কয়েকদফা চেকপোস্টে চেকিং বা তল্লাসীর কবলে পরেন অথচ চোরাচালান গডফাদারদের মালামাল দেখেও দেখেন না প্রশাসন এমন অভিযোগের সত্যতা রয়েছে।
এ বিষয়ে দহগ্রাম চেয়ারম্যান কামাল হোসেন প্রধান বলেন,আগের মত অবস্থা নেই বললেই চলে।তবে গরু বাদে টুকিটাকি ছোটখাটো কোন মালামাল কেউ নিতে পারে।
বৃহস্পতিবার রাতে বিজিবি’র হাতে পানবাড়ি এলাকার এক লোক ভারতীয় চকলেট সাম্পাপুরিসহ আটক হয়েছে এমন খবর জানা গেছে।

এ ব্যাপারে রংপুর ৫১ বিজিবি’র সিও বা পরিচালক লে,কর্ণেল ইসহাক বলেন,তিনবিঘা একটি গুরুত্বপূর্ণ জনপথ।সেখানে অনেক ভিআইপিসহ ভ্রমনকারী লোকজন যাতায়াত করেন।সতর্ক দৃষ্টি সিসিটিভি থাকার পরও বিজিবি’র চেক পোস্ট রয়েছে। অনিয়ম হওয়ার কথা নয় এমন দাবী করলেন সিও।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 Daily Lal Barta
Design & Developed BY N Host BD