বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ১০:৪১ পূর্বাহ্ন

ঘোষনাঃ-
সারাদেশে সকল জেলা ও উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ করা হইবে, আগ্রহী প্রার্থীগণকে নিম্ন ঠিকানায় অথবা ইমেইল এ আবেদন পত্র জমা দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হইলো।
শিরোনাম :
অভাব অনটনে দিশেহারা বৃদ্ধ আফজাল; সংসার চলে বাঁশের মুড়ায়! সাংবাদিকতায় সম্মাননা পেলেন মোঃ আবদুল আউয়াল সরকার দহগ্রাম ইউনিয়ন চেয়ারম্যান পদে নৌকার মনোনয়ন পাচ্ছেন রুনা লায়লা! পাটগ্রাম থানা ওসি’র বদলি পাটগ্রাম থানা পুলিশের ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত বঙ্গবন্ধু ও ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ… লালমনিরহাটে হুন্ডি ব্যবসায়ী ভারতীয় ৭লাখ ৭০হাজার রুপিসহ পুলিশের হাতে আটক পাটগ্রামে ইউএনও’র কুশপুত্তলিকা দাহ করার ঘটনায় গোয়েন্দা সংস্থার তদন্ত চলছে অর্থাভাবে অগ্নিদগ্ধ এক নারীর চিকিৎসা করাতে পারছেনা হতদরিদ্র পরিবারঃআশঙ্কাজনক! পাটগ্রামে কাজীর কুকর্ম ফাঁস করলেন প্রতারনার শিকার এক গৃহবধূ! সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পিলখানা হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দোষীদের চূড়ান্ত বিচারের রায় এই বছরের মধ্যেই কার্যকর করার দাবি জানিয়েছে বিএনপি ঢাকা-জলপাইগুড়ি ট্রেন চলাচল শুরু ২৬ মার্চ পাটগ্রামে আবারও ইউএনও বদলি! ভারতীয় পুলিশের হাতে আটক বাংলাদেশি যুবক! জমি দখল নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে মুক্তিযোদ্ধা পরিবার লালমনিরহাটে পলিথিনে মোড়ানো গুলিভর্তি একটি ম্যাগাজিন উদ্ধার! পাটগ্রামে ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী ব্যাংক কর্মকর্তা নিহত সাংবাদিক হত্যার বিচার দাবিতে ২৩ ফেব্রুয়ারি দেশব্যাপী প্রতিবাদ সমাবেশের ঘোষণা লালমনিরহাটে মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

জমি দখল নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে মুক্তিযোদ্ধা পরিবার

এস বাবু রায়, লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধি।

লালমনিরহাট জেলার আদিতমারি উপজেলার জমির দখল নিয়ে সৃষ্ট দ্ব্েদ্ব নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন এক মুক্তিযোদ্ধা পরিবার। সাপ্টিবাড়ি ইউনিয়নের পশ্চিম দৈলজোর এলাকার জেল নং-১০৩ খতিয়ান -০১ দাগ ১৫৩৪ জমির ২১.৪১এর মধ্যে ২.১০ একর যুদ্ধাহত  বীরমুক্তিযোদ্ধা  মৃত রইস উদ্দিন ফকির ও তার পরিবার ভূমিহীন হওয়ায় ২০১০ সালে সরকারিভাবে বরাদ্দ পান। উক্ত জমি মুক্তিযোদ্ধা ও তার পরিবার বরাদ্দ পাওয়ার পূর্বে ভোগ করে আসছিলেন আদিতমারি উপজেলার পূর্ব দৈলজোর এলাকার মৃত জেহেদ আলীর পুত্র ইব্রাহীম শেখ(৬৫) নুরু শেখ (৫৫) হামিদ, আবুল কাশেম (৪০) ও তাদের পরিবার। সরকারিভাবে জমি বরাদ্দ পাওয়ার  তা ভোগ দখলে নিতে গেলেই উভয় পক্ষে সৃষ্ট হয় দ্বন্দ্ব। উক্ত দ্বন্দ্বকে কেন্দ্র করে থানায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগও দায়ের করেন দুই পক্ষ। মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায় ভূমিহীন হওয়ায় মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা রইস উদ্দিন ফকির বরাদ্দকৃত সরকারি জমি দখলকে কেন্দ্র করে বিরোধ দীর্ঘ দিন ধরে চলছে। আদালতে মামলাও চলমান তবে এখনও হুমকিতে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যরা। বীরমুক্তিযোদ্ধা মৃত রইস উদ্দিন ফকিরের স্ত্রী বলেন এ জমি আমাদের সরকার দিয়েছে। জমির একাংশে আমাদের বাড়ি আর বাকি দিকটায় চাষাবাদ ও মাছ চাষ করে জিবন চালানোর চেষ্টা করে যাচ্ছি। তবে সঠিকভাবে তা এখনও দখলে নিতে পারিনি আমরা। প্রতিপক্ষরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে দলবদ্ধ হয়ে এর আগে আমাদের পরিবারের উপর হামলা চালিয়েছিলো। এতে আমার ছেলেরা আহত হয়ে চিকিৎসা নিয়েছে।  এ বিষয়ে আদিতমারি থানায় অভিযোগ করেছিলাম। পরে আবার জমি সংক্রান্ত মামলা করি, এ বিষয়ে এখানে তদন্তও হয়েছে যাতে স্পষ্ট উল্লেখ করা হয়েছে এ জমি আমারা সরকারিভাবে বরাদ্দ পেয়েছি। ২৯ অক্টোবর ২০২০ তারিখের সাপ্টিবাড়ি ইউনিয়ন ভূমি অফিসের এক তদন্ত প্রতিবেদন যার সূত্র স্মারক নং-অজেম্যা/লাল/২০২০/৩৮৯(২)/২০ সূত্রে জানা গেছে খতিয়ান -১ এর ১৫৩৪ দাগে ২১.৪১ একর যা নালিশি কালেক্টর রংপুর নামে রেকর্ড প্রচারিত আছে। তার মধ্যে ২.১০ একর জমি মৃত মুক্তিযোদ্ধা রইস উদ্দিন ফকির ও তার  পরিবার জেলা প্রশাসক কর্তৃক বন্দোবস্ত পায় যার কবুলিয়াত দলিল নং-৬৭৩,৬৭৬,৭৯৫,৬৭৫,৬৭২ এবং এ দলিল গুলো ৩১ জানুয়ারি ২০১৮ এবং কবুলিয়াত দলিল নং-৯১৬ ২১ মার্চ ২০১০ তারিখের। তবে উভয়ের দ্বন্দ্বের কারণে আদালতে একটি মামলা চলমান যার নাম্বার ২৫/২০২০ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা রইস উদ্দিন ফকিরের স্ত্রী বলেন, আদালতে মামলা চলমান তবে এখনও ইব্রাহিম ও তার পরিবারের লোকজন মাঝে মাঝে  দলবল নিয়ে আসে আমাদের হুমকি দেয় বাড়ি-ঘর ভাংচুর ও মারধর করার। তিনি বলেন আমি এবং আমার সন্তান রাস্তাঘাট চলাচল করি তবে খুব ভয়ে ভয়ে। আদালতে মামলা চললেও ভয় কমেনি আমাদের, বর্তমানে আমরা নিরাপত্তা হীনতায় চলাচল করি, আমরা শান্তি চাই। এ বিষয়ে প্রতিপক্ষ ইব্রাহিমের পরিবারের এক সদস্যের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, উক্ত জমি নিয়ে আদালতে মামলা চলমান। আদালত বিচারে যা রায় দিবে তা মেনে নিবো।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 Daily Lal Barta
Design & Developed BY N Host BD